ইতালী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নাম ব্যবহার করে সরকারী কাজে হস্তক্ষেপের চেষ্টা, ইউরোপ জুড়ে নিন্দার ঝড়, বহিষ্কার দাবি।

ডেস্ক রিপোর্টঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নাম ব্যবহার করে ফেইসবুকে স্ট্যাটাস পাসপোর্ট জমা দেবার আহ্বান জানিয়ে দলীয় নেতা কর্মীসহ সাধারণ মানুষের রোষানলে পড়েছ ইতালি আওয়ামী লীগের কর্মী এম এ রব মিন্টু ।গত ৫ জুন ফিনল্যান্ড সফরকালে প্রধানমন্ত্রী
শেখ হাসিনা নাকি,জনাব মিন্টুকে ইতালিতে পাসপোর্ট সমস্যায় থাকা ব্যক্তিদের তালিকা দিতে বলেছেন,উল্লেখ করে তার নিজের ফেইসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে নতুন করে পাসপোর্ট দালালীর সুযোগ গ্রহণের অপচেষ্টা চালাচ্ছে ।

তার ঐ বক্তব্যে তিনি তার ইমু,ভাইবার এবং ইমেইল ঠিকানা দিয়ে প্রবাসী বাংলাদেশিদের যোগাযোগ করার অনুরোধ করেছেন । জনাব মিন্টুর ঐ বক্তব্য প্রচারের পর রোম প্রবাসী বাংলাদেশিদের একটি প্রতিনিধি দল ইতালির রাষ্ট্রদূত আব্দুস সোবহান সিকদারের সাথে তার কার্যালয়ে দেখা করে প্রধানমন্ত্রী ও রোম দূতাবাসের মর্যাদা ক্ষুন্ন করায় মিন্টুর নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।দূতাবাসকে বিতর্কিত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে উল্লেখ করে তারা মিন্টুর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান ।রোম প্রবাসী বাংলাদেশিরা ইতালি আওয়ামী লীগের সভাপতি ইদ্রিস ফরাজী ও সাধারণ সম্পাদক হাসান ইকবাল কাছে মিন্টুর বহিষ্কার দাবি করেন ।
বাংলাদেশ সমিতি ইতালির সভাপতি আফতাব বেপারী তার ফেইসবুকে লিখেছেন, “প্রধানমন্ত্রীর কথা বলে,দলীয় পদবী ব্যবহার করে দালালীর পথটা শক্ত করতে চাইছে মিন্টু সাহেব।কত টাকা নিয়ে কতদিনে
পাসপোর্ট দিবেন?সরকারের দায়িত্ব প্রাপ্ত না হয়ে তিনি কিভাবে পাসপোর্ট দিবেন ” কিটন সিকদার একজন ব্যবসায়ী ও রাজনীতিক ফেইসবুকে মন্তব্য করেছেন, “যে নিজেই দালাল,সে যদি বলে,আমার কাছে কাগজ জমা দেন,তাহলে তো পাবলিকের মরণ ছাড়া উপায় নাই” প্রবাসীরা বলছেন, সর্বইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগ নেতারা মিন্টুকে মিন্টুকে এসব করার ক্ষমতা দিয়েছে? প্রবাসীরা।মিন্টুকে দল ও দেশের স্বার্থে অবিলম্বে বহিষ্কার করার দাবি জানান তারা।