খাগড়াছড়ি সংবাদদাতা: খাগড়াছড়িতে দর্ষনের দায়ে বেলাল হোসেন নামে এক আইনজীবীকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন খাগড়াছড়ি আদালত।

বিয়ের প্রলোভনে এক নারীকে ধর্ষণের দায়ে এ শিক্ষানবিশ আইনজীবীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছে। বুধবার বিকেলে খাগড়াছড়ির নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুন্যালের ভারপ্রাপ্ত বিচারক রেজা মো. আলমগীর হাসান এ রায় দেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামী বেলাল হোসেন খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গার মাতব্বর পাড়া এলাকার আবদুল আক্কাসের ছেলে। রায় ঘোষনার সময় আসামী আদালতে উপস্থিত ছিল।

রাষ্ট্রপক্ষের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এডভোকেট বিধান কানুনগো জানান, এক নারী বাদী হয়ে বেলাল হোসেনকে আসামী করে বিগত ২৬ জুন ২০১৪ ইং তারিখে মাটিরাঙ্গা থানায় মামলা করেন। মামলার এজাহারে বাদী উল্লেখ করেন আসামী বেলাল হোসেন বিয়ের প্রলোভনে বিভিন্ন স্থানে একাধিকবার ঐ নারীকে ধর্ষণ করে। বিষয়টি সমাধানের জন্য স্থানীয়ভাবে উদ্যোগ নিলে আসামী বেলাল সালিশ থেকে পালিয়ে যায়। পরে ভিকটিম মামলা করলে মামলায় তদন্তকারী কর্মকর্তা মোঃ সুমন কুমার আদিত্য বিগত ১০ অক্টোবর ২০১৪ তারিখে অভিযোগ পত্র জমা দেন। দীর্ঘ ৪ বছর পরে ২০১৮ সালে স্বেচ্চায় আত্মসমর্পন করে জামিন নেয় বেলাল। বিজ্ঞ আদালত অভিযোগ গঠন করার পর মোট ৭ জন সাক্ষী সাক্ষ্য দেন। মামলাটি সাক্ষ্য প্রমাণে প্রমাণিত হওয়ায় আসামীকে যাবজ্জীবন ও অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করে আাদলত। রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছে বাদী ও রাষ্ট্রপক্ষ।